কুড়িগ্রামে হাসপাতালে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে

কুড়িগ্রামে গত পাঁচদিন ধরে সকাল থেকে দিনভর সূর্যের মুখ দেখা যাচ্ছে না। ঘন কুয়াশা কম থাকলেও আকাশ মেঘলা থাকায় ঠাণ্ডার মাত্রা কয়েকগুণ বেড়েছে। কদিন ধরে জেলার তাপমাত্রা ৯ থেকে ১২ ডিগ্রির মধ্যে ওঠানামা করছে।

তবে শীতের তীব্রতা মোটেও কমেনি। পৌষের ঠাণ্ডার দাপটে কাবু হয়ে পড়েছে উত্তর জনপদ কুড়িগ্রামের মানুষজন। এ অঞ্চলের দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষজন সবচেয়ে বিপাকে পড়েছে বেশি।শীতের তীব্রতা বৃদ্ধি পাওয়ায় নদ-নদী তীরবর্তী চর ও দ্বীপ চরের শত শত মানুষ পড়েছেন শীতকষ্টে। অন্যদিকে, পাল্লা দিয়ে বাড়ছে হাসপাতালে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা। এ রোগে আক্রান্ত হচ্ছে শিশু ও বয়স্করা।

জেনারেল হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় জেনারেল হাসপাতালে শুধুমাত্র ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ভর্তি হয়েছে ৩১ জন। এখন পর্যন্ত এ রোগে ভর্তি আছে ৬৩ জন। যাদের অধিকাংশই শিশু ও বৃদ্ধ। আর শ্বাসকষ্ট ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি রয়েছে ১৪ জন।

জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আতিকুর রহমান বলেন, প্রতিদিন ডায়রিয়া, নিউমোনিয়াসহ নানা রোগে হাসপাতালে রোগী আগের চেয়ে বেশি ভর্তি হচ্ছে। এ সংখ্যা ক্রমেই বাড়তে পারে।

এদিকে, স্থানীয় আবহাওয়া অফিস জানায়, রবিবার সকালে জেলার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এ মাসের শেষে একটি মৃদু কিংবা মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ জেলার ওপর দিয়ে বয়ে যেতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *