মিয়ানমার সীমান্তেও বাংলাদেশের মতো পদক্ষেপ নিচ্ছে ভারত

মিয়ানমার সীমান্তেও বাংলাদেশের মতো পদক্ষেপ নিচ্ছে ভারত। অবাধ চলাচল নিষিদ্ধ করতে মিয়ানমারের সঙ্গে ভারতের সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দেয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। খবর এনডিটিভির।
মিয়ানমারে জাতিগত সশস্ত্র বিদ্রোহীদের সঙ্গে সংঘাতের মধ্যে জান্তা বাহিনীর শত শত সেনা সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে প্রবেশ করছে। এমন পরিস্থিতিতে সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দেয়ার ঘোষণা দিলেন ভারতের এই মন্ত্রী।

গত বছরের অক্টোবরে জান্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে সমন্বিত ও ব্যাপক অভিযান শুরু করে মিয়ানমারের তিনটি জাতিগত সশস্ত্র বিদ্রোহীদের জোট ‘ব্রাদারহুড অ্যালায়েন্স’। সেই থেকে উভয় বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষ চলছে।

বিদ্রোহীরা চিন, শান ও রাখাইন রাজ্যের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সীমান্ত চৌকিসহ ছোট বড় অন্তত ২০টি টাউন দখল করেছে। বিদ্রোহীদের প্রবল আক্রমণে জীবন বাঁচাতে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে আশ্রয় নিচ্ছে

সবশেষ চলতি সপ্তাহে সেনাবাহিনীর একটি ঘাঁটি বিদ্রোহী আরাকান আর্মির যোদ্ধারা দখলে নেয়ার পর প্রায় ৩০০ সেনা ভারতের মিজোরামের লঙ্গললাই জেলার আসাম রাইফেলস শিবিরে আশ্রয় নেয়। এভাবে গত তিন মাসে প্রায় ৬০০ জান্তা সেনা প্রতিবেশী দেশটিতে আশ্রয় নিয়েছে।
এনডিটিভির প্রতিবেদন মতে, ভারতের সঙ্গে মিয়ানমার সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দেয়ার মধ্য দিয়ে দু’দেশের ‘ফি মুভমেন্ট রেজিম’ (এফএমআর) থেকে সরে আসবে ভারত। তখন সীমান্তে বসবাসকারীদের অন্য দেশে ঢুকতে হলে ভিসার
প্রয়োজন হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *