৮০০ বছর আগে পৃথিবীতে এসেছিল এলিয়েন!

ভিণগ্রহের প্রাণী নিয়ে মানুষের আগ্রহের শেষ নেই। সায়েন্স ফিকশন সিনেমা ও গল্প থেকে শুরু করে রহস্যময় বস্তু পর্যন্ত—সবকিছুতেই এই ভিণগ্রহের প্রাণী বা এলিয়েন নিয়ে ভাবনা। এবার কলম্বিয়ায় এমন একটি মমি পাওয়া গেল, তা আদতে মানুষের কিনা বোঝা যাচ্ছে না। অনেকেই বলছেন এটি এলিয়েন হতে পারে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম লেডবাইবেল বলছে, কলম্বিয়ার মমিটি আসলে একটি ভ্রূণের। ৮০০ বছর আগে এটি মমি করা হয় বলে জানান স্প্যানিশ এলিয়েন গবেষক জোসেফ গুইজারো। এটি মানুষ কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। মানুষ হয়ে থাকলে ভ্রূণ থাকাবস্থায় এর মৃত্যু হয়েছিল।

গবেষকেরা বলছেন, মানুষের মতো দেখতে হলেও এই মমির মধ্যে মানুষের সব বৈশিষ্ট্য নেই। এর মাথার খুলি স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি প্রশস্ত। মমির চোখও বেশ তীর্যক। এ ছাড়া এর দেহে ১০টি পাঁজর রয়েছে। সাধারণত মানুষের দেহে ১২টি পাঁজরের হাড় থাকে।

আরও পড়ুনঃজম্বি অ্যাপোক্যালিপস কি সত্যিই সম্ভব?

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক টুইটে এলিয়েন গবেষক জোসেফ বলেন, ‘আমাকে একটি সূত্র থেকে জানানো হয়েছে, এই মমি কলম্বিয়ায় পাওয়া যায়। তবে এ নিয়ে এখনো পর্যাপ্ত তথ্য আমার হাতে এসে পৌঁছেনি। আমার মনে হচ্ছে, মেক্সিকোর এলিয়েনের মতো কলম্বিয়ার এই মমি নিয়েও রহস্য দেখা দেবে।’

এলিয়েন গবেষক জোসেফ গুইজারো বলছেন, এটি মানুষের বাচ্চাই হবে বলে মনে হচ্ছে। এমন মানুষ যদিও খুব একটা দেখা যেতো না। গবেষণা বলছে, মানুষের এই সম্প্রদায় গুহায় বাস করতো। রাতে ঘর থেকে বের হতো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *