বাপ্পি লাহিড়ীর ব্যবহৃত সোনার মালিকানা এখন কার কাছে?

বিনোদন ডেস্কঃ

ভারতের আশির দশকের জনপ্রিয় গায়ক বাপ্পি লাহিড়ী। ক্যারিয়ারে অসংখ্য হিট গান শ্রোতা-দর্শকদের উপহার দিয়েছেন তিনি। শুধু গান নয়, তার ফ্যাশনের জন্যও বেশ জনপ্রিয় ছিলেন এই সঙ্গীতশিল্পী। ২০২২ সালে স্লিপ অ্যাপনিয়ায় মারা যান বাপ্পি। মৃত্যুর সময় তার বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর।

ভারতে ‘গোল্ড ম্যান’ হিসেবেও পরিচিত ছিলেন বাপ্পি। সোনার গয়নার প্রতি ভীষণ ঝোঁক ছিল তার। হাতে চওড়া ব্রেসলেট, গলায় নানান মাপের সোনার গয়না পরে থাকতেন তিনি।

তবে বাপ্পির মৃত্যুর পর সেই সব গয়না কোথায় রাখা আছে? বদলে গিয়েছে কি এর মালিকানা? এমন প্রশ্ন রীতিমতো রহস্যের জট বেঁধেছে তার ভক্তদের মনে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের সূত্র অনুযায়ী, ২০১৪ সালেই এক এফিডেবিট করে গিয়েছিলেন বাপ্পি। সেখানে উল্লেখ ছিল, তার কাছে মোট ৭৫৪ গ্রাম স্বর্ণ রয়েছে। সেসময় যার বাজারমূল্য ছিল ভারতীয় মুদ্রায় ৩৮ লাখ ৭১ হাজার ৭৯০ টাকা। পাশাপাশি লেখা ছিল— বাপ্পির মৃত্যুর পর তার যাবতীয় সোনার গয়নার দায়িত্ব পাবেন গায়কের ছেলে বাপ্পা ও মেয়ে রিমা।

জানা গেছে, বাপ্পির মৃত্যুর পর তার ইচ্ছাকে মর্যাদা দিয়ে রিমা ও বাপ্পার কাছেই সেই সোনার গয়নাগুলো গচ্ছিত রাখা আছে। তবে সেগুলো খুবই যত্নসহকারে নিজেদের কাছে রেখে দিয়েছেন তারা। বিক্রি করেননি দুই ছেলেমেয়ের কেউই। মূলত স্মৃতি হিসেবে সেটা পরিবারের কাছে গচ্ছিত রয়েছে।

মৃত্যুর আগে এক সাক্ষাৎকারে বাপ্পি জানিয়েছিলেন, গোল্ড ইজ মাই গড! আমি ছিলাম প্রেসলির বড় ভক্ত। আমি সবসময় ভাবতাম আমি যদি কখনও সাফল্য পাই, তাহলে আমি নিজের ইমেজ আলাদাভাবে তৈরি করব। ভগবানের আশীর্বাদে সোনা দিয়ে সেটা করতে পেরেছি। অনেক লোকই ভাবেন আমি মানুষকে দেখানোর জন্য গয়না পরি। কিন্তু সেটা সত্যি নয়। আমি সোনা পড়তে ভালোবাসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *